সকালে ঘুম ভাঙার পর ‘ছেলেদের’ ‘নু’নু খাড়া থাকে কেন?

0
282
সকালে ঘুম ভাঙার পর 'ছেলেদের' 'নু'নু খাড়া থাকে কেন
সকালে ঘুম ভাঙার পর 'ছেলেদের' 'নু'নু খাড়া থাকে কেন

সকালে *ঘুম ভা’ঙার পর ছেলেদের ‘ধো’ন ‘বা ‘হো’ল বা ‘নু’নু খাড়া থাকে। সম্প্র’তি এর কারণ বিশ্লেষণ করেছেন একদল গবেষকরা। পুরুষেরা ভোরে *যৌ’নতায় আগ্রহী হলেও নারী এ সময় যৌ’নতায় সেই ভাবে আগ্রহী থাকে না। >এর মূল কা’রণ টেস্টোস্টেরন হরমোন বলে মনে করছেন গবেষ’করা। এক প্রতিবেদনে বি’ষয়টি জানিয়ে’ছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

>সকালে ঘুম ভা’ঙার পর ছেলেদের ‘ধো’ন বা ‘হো’ল বা ‘নু’নু খাড়া থাকার কারণঃ>
রাতে যখন নারী ভালোবাসার পরিপূর্ণ স্বাদ নিতে চান তখন পু’রুষরা* গভীর ঘুমে মগ্ন থাকে। >গবেষকরা জানিয়েছেন, এর মূ’ল কারণ হলো নারী ও পুরুষের হরমো’নের পার্থক্য। আর এ পার্থক্যের কারণেই উভয়ের দেহঘড়ি এ’কত্রে চলে না। >গবেষকরা এক্ষেত্রে কয়েকটি সময়ের বর্ণনা করেছেন, যে সম’য়ে নারী-পুরুষের হরমোনের পার্থক্য লক্ষ্যণীয়।>

>ভোর ৫টায় পুরু’ষের* টেস্টোস্টেরন (Testosterone) হরমোন সর্বাধিক বেশি থাকে।> দিনের অন্য সময়ের তুলনায় ভোর রাত্রে এর মাত্রা ২৫ থেকে ৫০ শতাংশ বেশি হয়। >এ সময় নারীও টেস্টোস্টে’রন হরমোন উৎপাদন করে। তবে তা অ’তি সামান্য মাত্রায়।

.>ঘুম যত ল’ম্বা হয় হরমোনটির প্রভাবও তত বে’শি হয়। আমেরিকান* মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (American Medical Association) জানিয়ে’ছে, পাঁচ ঘণ্টার বেশি ঘুম পুরুষের হরমোনটির মাত্রা ১৫ শতাংশ বাড়িয়ে দিতে পারে।

>ভোর ৫টা থেকে সকাল ৭ টায় যদি *কোনো পুরু’ষ ঘুম থেকে উঠে তখন তার দেহে যতখানি টেস্টোস্টেরন হরমোনের মাত্রা থাকে তা সর্বাধিক। >কিন্তু একজন নারীর সে সময় সবচে’য়ে কম থাকে।
অন্য’দিকে দিন শেষে *পুরুষের এ হরমোনটির মাত্রা সবচেয়ে কমে যায়* আর নারীর সবচে’য়ে বেশি থাকে।> আর এ কারণেই সকালে ঘুম ভাঙার পর ছেলে’দের ‘ধো’ন বা ‘হো’ল বা ‘নু’নু খাড়া থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here